1. imran.vusc@gmail.com : প্রিয়আলো ডেস্ক : প্রিয়আলো ডেস্ক
  2. m.editor.priyoalo@gmail.com : Farhadul Islam : Farhadul Islam
  3. priyoalo@gmail.com : প্রিয়আলো ডেস্ক :
  4. imran.vus@gmail.com : Sabana Akter : Sabana Akter
চিপসের প্যাকেট ১, ডাবের খোসা ও দইয়ের পাত্র ২ টাকায় কিনবে ডিএনসিসি - প্রিয় আলো

চিপসের প্যাকেট ১, ডাবের খোসা ও দইয়ের পাত্র ২ টাকায় কিনবে ডিএনসিসি

  • আপডেট সময় সোমবার, ৬ মে, ২০২৪
  • ২৭
Dncc Risingbd 2405061159

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) কুড়িল প্রগতি সরণি এলাকায় একটি খোলা ট্রাকে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম। হ্যান্ড মাইক নিয়ে মেয়র ডাকছেন ‘ডাবের খোসা ২ টাকা, চিপসের প্যাকেট ১ টাকা, দইয়ের পাত্র ২ টাকা…।’

আশপাশে অনেক উৎসুক জনতা। কারও হাতে চটের বস্তা ভরা চিপসের প্যাকেট, ডাবের খোসা। তারা সেসব বিক্রির জন্য মেয়রের হাতে ধরিয়ে দেন। মেয়র বস্তায় থাকা চিপসের প্যাকেট, ডাবের খোসা, দইয়ের মাটির পাত্র গুণে নগদ টাকায় সেসব কিনে নিলেন। কিছুক্ষণের মধ্যে কয়েক বস্তা চিপসের প্যাকেট, টায়ার নগদ টাকায় কিনে নেন ডিএনসিসি মেয়র।

সোমবার (৬ মে) রাজধানীর কুড়িল এলাকায় খোলা ট্রাকে দাঁড়িয়ে এভাবেই ডেঙ্গুর প্রজনন হিসেবে পরিচিত অব্যবহৃত জিনিসপত্র কিনে নেন মেয়র আতিকুল ইসলাম।

এ সময় মেয়র আতিকুল ইসলাম উপস্থিত জনগণের উদ্দেশে বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে ডিএনসিসির পক্ষ থেকে আমরা এ কার্যক্রম হাতে নিয়েছি। সবাই সচেতন না হলে সিটি কর্পোরেশনের একার পক্ষে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে নয়। এসব পরিত্যক্ত টায়ার, দইয়ের পাত্র, ডাবের খোসা, চিপসের প্যাকেটে জমে থাকা স্বচ্ছ পানিতে এডিস মশা জন্মায়। আর যেন পানি জমতে না পারে, সে কারণে আমরা এসব কিনে নেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছি। আশা করছি, এর মাধ্যমে সাধারণ মানুষ সচেতন হবেন। ডিএনসিসি প্রতিটি কাউন্সিলরের কার্যালয়ে গিয়ে আপনারা এসব জমা দিয়ে নগদ অর্থ নিয়ে যাবেন।

মেয়র আরও বলেন, ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে শহরজুড়ে যত্রতত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা এডিস মশার প্রজনন স্থল এবং পরিবেশের জন্য হুমকিস্বরূপ পরিত্যক্ত পলিথিন, চিপসের প্যাকেট, আইসক্রিমের কাপ, ডাবের খোসা, অব্যবহৃত টায়ার, কমোড ও অন্যান্য পরিত্যক্ত দ্রব্যাদি সাধারণ মানুষের কাছ থেকে কিনে নেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন।

প্রতিটি ওয়ার্ডে কাউন্সিলরের কার্যালয়ে গিয়ে যে কেউ এসব পরিত্যক্ত দ্রব্যাদি জমা দিয়ে নগদ অর্থ সংগ্রহ করতে পারবেন। প্রতিটি ওয়ার্ডের ক্রয়কৃত পরিত্যক্ত দ্রব্যাদি প্রতিদিন নিয়মিতভাবে সংগ্রহ করে পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা নিকটবর্তী এসটিএস (সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন)-এ অপসারণ করবেন। জনগণকে সম্পৃক্ত করে প্রতিটি ওয়ার্ডকে পরিচ্ছন্ন করার লক্ষ্যে এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সংস্থাটি।

ডিএনসিসি সূত্রে জানা গেছে, পরিত্যক্ত চিপসের প্যাকেট বা সমজাতীয় প্যাকেট প্রতি ১০০টির জন্য ১০০ টাকা; আইসক্রিমের কাপ, ডিসপোজেবল গ্লাস, কাপ ১০০টি ১০০, অব্যবহৃত পলিথিন প্রতি কেজি ৫০, প্রতি ডাবের খোসা ২; মাটি, প্লাস্টিক, মেলামাইন, সিরামিক পাত্র প্রতিটির জন্য ৩ টাকা।

এ ছাড়া পরিত্যক্ত টায়ার প্রতিটি ৫০, পরিত্যক্ত কমোড, বেসিন প্রতিটির জন্য ১০০, পরিত্যক্ত প্লাস্টিকের দ্রব্যাদি প্রতি কেজি ১০ টাকায় কিনে নেবে উত্তর সিটি কর্পোরেশন।

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved priyoalo.com © 2023.
Site Customized By NewsTech.Com
x